প্রতিকী ছবি

বরিশালে সাড়ে ৭ ঘণ্টার ব্যবধানে করোনা ইউনিটে ২ জনের মৃত্যু

প্রথম আলো

বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। আজ রোববার সকাল সাড়ে সাতটার দিকে ৪৫ বছর বয়সী রোগীর মৃত্যু হয়। তাঁর বাড়ি পটুয়াখালী সদর উপজেলায়।

এর আগে গতকাল শনিবার রাত ১২টার দিকে এই হাসপাতালে ভর্তির পর ৪৫ বছর বয়সী এক নারীকে করোনা ইউনিটে নেওয়ার পর পরই তিনি মারা যান। সাড়ে ৭ ঘণ্টার ব্যবধানে করোনা ইউনিটে দুই রোগীর মৃত্যুর ঘটনায় চিকিৎসকেরাও উদ্বিগ্ন। বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক বাকির হোসেন বিষয়টি প্রথম আলোকে নিশ্চিত করেছেন। আজ মারা যাওয়া ব্যক্তির বিষয়ে তিনি বলেন, পটুয়াখালী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে রেফার করার পর গতকাল বিকেলে ওই রোগীকে এই হাসাপাতালে নিয়ে আসেন তাঁর স্বজনেরা। ওই রোগীকে প্রথমে মেডিসিন ইউনিটে এবং পরে করোনা ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়। আজ সকালে তাঁর মৃত্যু হয়।

হাসপতালের পরিচালক বলেন, ‘আমাদের এখানে করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ কোনো কিট নেই। তবুও রোগীর লক্ষণ দেখে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সন্দেহে তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।’ তিনি আরও বলেন, এই রোগীর মৃত্যুর বিষয়টি সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানকে (আইইডিসিআর) জানানো হয়েছে। তাদের নির্দেশনা অনুযায়ী মরদেহ দাফনের ব্যবস্থা করা হবে।

মারা যাওয়া ব্যক্তির শ্বশুর বলেন, দীর্ঘদিন ধরে তাঁর জামাতা শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় আক্রান্ত ছিলেন।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, করোনা ইউনিটে এখন পাঁচজন রোগী ভর্তি আছেন। তাঁরা কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত কিনা, সেটা পরীক্ষা-নিরীক্ষা না করে নিশ্চিত বলা যাবে না।

এটা প্রথম আলোর আজকের প্রতিবেদন-

“করোনার কিট নেই এমন কথাও আজো শুনতে হয়,টেস্ট বিহীন রোগী আর টেস্ট বিহীন রোগীর মারা যাওয়া দুটাই এখন গণনার বাইরে। “

Comments

comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here